সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গত মঙ্গলবার সউদী আরবে ৩৭ দন্ডিত ব্যক্তির শিরচ্ছেদ করা হয়েছে। রাজধানী রিয়াদ, মক্কা, মদিনা, মধ্যাঞ্চলীয় কাসিম ও শিয়া অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশে অভিযুক্ত কট্টরপন্থীদের শিরচ্ছেদ করা হয়।
সউদী রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সউদী প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসবাদে জড়ানো, চরমপন্থী মতাদর্শ পোষণ, সন্ত্রাসী সেল গঠন ও দেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার দায়ে অভিযুক্তদের শিরচ্ছেদ করা হয়েছে। সউদী আরবে সাধারণত অভিযুক্তদের শিরচ্ছেদ করে সর্বোচ্চ সাজা কার্যকর করা হয়।
কর্তৃপক্ষ বলছে, এই ৩৭ জনের মধ্যে একজনকে শিরচ্ছেদের পর ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছে। গুরুতর অপরাধের দায়ে অভিযুক্তদের শিরচ্ছেদের পর ক্রুশবিদ্ধ করার আইন দেশটিতে বলবৎ রয়েছে। সউদী আরবে গুরুতর অপরাধের ক্ষেত্রে এই ধরনের শাস্তির বিধান রয়েছে। রিয়াদ, মক্কা, মদিনা, মধ্যাঞ্চলীয় কাসিম ও শিয়া অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশে অভিযুক্তদের শিরচ্ছেদ করা হয়।
গত রোববার সউদী আরবের রাজধানী রিয়াদে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠি ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হামলার চেষ্টা নস্যাৎ করার একদিন পর এই গণশিরছ্চেদের খবর এলো। চরম রক্ষণশীল দেশটিতে একদিনেই ৩৭ জনকে মৃত্যুদন্ড দেওয়ার ঘটনা গত তিন বছরের মধ্যে সর্বাধিক। ২০১৭ সালে মোহাম্মদ বিন সালমান যুবরাজ মনোনীত হওয়ার পর এই প্রথম এত বড় গণমৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হলো।
সউদী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, সন্ত্রাসবাদ ও চরমপন্থী মতাদর্শ ছড়িয়ে দেয়া এবং সন্ত্রাসী দল গঠনে ভূমিকা রাখার দায়ে ৩৭ জন কট্টরপন্থীর মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের দাবি, দন্ডপ্রাপ্তরা সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে দিয়ে দেশকে বিশৃঙ্খলার মধ্যে ঠেলে দিচ্ছিল। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কয়েকজন কর্মকর্তাকে হত্যা, নিরাপত্তা অবকাঠামোতে হামলা এবং রাষ্ট্রের শত্রুকে সহায়তার জন্য তারা দোষী সাব্যস্ত হন। সূত্র : বিবিসি ও ডেইলি মেইল

SHARE